Home খাস বিনোদন রাধিকার মতো বউ খুঁজছেন পরিচালক অয়ন

রাধিকার মতো বউ খুঁজছেন পরিচালক অয়ন

রাইমা খাতুন: টেলিভিশনের দুই জনপ্রিয় চরিত্র রাধিকা আর কর্ণ এখন মানুষের মন জুড়ে বিরাজমান। এই জুটির মান-অভিমান দেখে অনুরাগীরা বেশ মজাই পায়। তাঁদের প্রেম দেখতে তাই রাত ৯.৩০ টিভির পর্দা থেকে চোখ সরাননা বহু দর্শক।

 

- Advertisement -

জি বাংলার ‘কি করে বলব তোমায়’ ধারাবাহিকটি এখন দারুণ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। রাধিকা কর্ণ ছাড়াও ভিলেন পায়েল সেনের রাধিকাকে জব্দ করার নানান ফন্দি কিন্তু মানুষ বেশ উপভোগ করে।

 

এই ঝগড়া, খুনসুটি, প্রেম এবং ভালোবাসা নিয়েই ২০০ পর্বে পদার্পণ জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘কি করে বলব তোমায়’। সেই কারণেই শুটিং ফ্লোরে সেলিব্রেশন। হইচই-হুল্লোড় আর মজার নানা কাহিনী শোনাতে শুটিংয়ের ফাঁকে খাসখবরের প্রতিনিধির সঙ্গে আড্ডা দিলেন এই ধারাবাহিকের পরিচালক অয়ন সেনগুপ্ত।

প্রশ্ন: ‘কি করে বলব তোমায়’ এর মতন এমন একটি ধারাবাহিকের কনসেপ্ট মাথায় এল কি করে ?

অয়ন: কনসেপ্টটি আমার নয়। এটি এই ধারাবাহিকের প্রযোজক শশী-সুমিত প্রোডাকশনের ধারণা। এর আগেও এই ধরণের ভালোবাসা নিয়ে সিরিয়াল হয়েছিল। কিন্তু শুধুমাত্র লাভ স্টোরি যে একটা গল্পের মূল স্তম্ভ হতে পারে ইদানিং এই ব্যাপারটা একেবারেই বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সেই কারণেই এটা আমার কাছে আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং। যে একটা না হওয়া ভালোবাসাকে নিয়ে কিভাবে কাজ করা যায়। সেইভাবেই শুরু এই ধারাবাহিক। আর মানুষ তাঁর উপরেই সবচেয়ে বেশি রাগ করে যাকে সে সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে এটা আমার ধারণা। রাগের মধ্যে দিয়েও যে একটা মিষ্টতা থাকে এখানে সেটাও একটা প্রায়োরিটি পেয়েছে। হিরো এবং হিরোইন দুজনেই দুজনকে অসম্ভব ভালোবাসে। কিন্তু ঘটনাচক্রে তাঁরা সেটি বলে উঠতে পারছে না। অথচ ভালোবাসার মানুষের প্রতি কেয়ার করছে। কিন্তু এটাও যে ভালোবাসার একটি প্রকাশ হতে পারে সেটাই ‘কি করে বলব তোমায়’ দেখায়।

 

প্রশ্ন: অনেক ঝড় ঝাপটা পেরিয়ে এখন কর্ণ রাধিকা একসঙ্গে রয়েছে। আরও কত চড়াই উতরাই দেখবে এই লাভ বার্ডস ?

অয়ন: সমাজে যা ঘটে সেটাই তো সিরিয়ালের রুপ হয়। তাতে আমরাও কিন্তু অনেক ঝড় পেরোচ্ছি। ভালোভাবেই শুরু হয়েছিল সবকিছু। কিন্তু কোভিড পরিস্থিতির জন্য আমাদের শুটিং বন্ধ ছিল বেশ কয়েক মাস। আমরা কাজ শুরু হওয়ার পরেও বিভিন্ন রকমের সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি প্রতিদিন প্রতিটি জিনিসে। এমনকি আমাদের বাস্তব জীবনেও। আমরা কিন্তু আগামীকাল কি হবে সেটা জানিনা। তাই মেগাসিরিয়ালের ক্ষেত্রেও লাভ বার্ডসরা অনেক ঘাত-প্রতিঘাত সহ্য করছে। তাঁরা কাছে আসছে। অশুভ শক্তিরাও তাঁদের আশেপাশে রয়েছে। কিন্তু তবুও তাঁরা একসঙ্গে আছে। একটা দুষ্টু মিষ্টি ভালোবাসা তাঁদের মধ্যে রয়েছে। এরপর ভবিষ্যতে চড়াই উতরাই তো থাকবেই। কারণ দিনের শেষে এটা মেগা সিরিয়াল। চড়াই উতরাই যাই থাকুক না কেন তাঁরা কাছাকাছি আছে এবং তাঁরা থাকবে এটাই আমাদের চাওয়া।

প্রশ্ন: সিরিয়ালে রাধিকার দুই রকমের লুক আমরা দেখতে পাই। একটি কর্পোরেট লুক আর একটি বাড়ির বউ হিসেবে। এই লুকের কারণ কি?

অয়ন: গল্পে হিরোইন একজন ফ্যাশন ডিজাইনার। তিনি কাজ করেন একটি নামজাদা ফ্যাশন কোম্পানিতে। কাজেই এই চমকটা তো থাকবেই। বাড়ির মহিলারা বাড়িতে যেভাবে থাকে কাজের জায়গায় কিন্তু সেভাবে যায়না। অন্যভাবেই বেরোয় তাঁরা। লুক নিয়ে নানারকম এক্সপেরিমেন্ট আমরা এর আগেও করেছি। শুধুমাত্র রাধিকা নয়, এই সিরিয়ালের অন্যান্য চরিত্রদের নিয়েও এই কাজ করা হয়েছে। আমরা আগামীদিনেও এই রকম এক্সপেরিমেন্ট করব। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমার ধারণা দর্শকের এখন যতটা ভালো লাগছে পরেও ভালো লাগবে।

প্রশ্ন: হটাৎ করে ডলি গেল কোথায়? তাঁর আদরের জিজি কি তাঁকে মিস করছেনা?

অয়ন: ডলি কাকিমাকে আমরাও মিস করছি দর্শকের সঙ্গে। কিন্তু কিছু কারণের জন্যই তাঁকে আমরা দেখাতে পারছিনা। তবে এবার দেখা যাক গল্পের আঁকেবাঁকে কোথাও আসে কি না আবার।

 

প্রশ্ন: মেগাসিরিয়াল মানেই আমরা দেখি একাধিক বউ বা বর। ‘কি করে বলব তোমায়’ সিরিয়ালেও কি সেটাই দেখবে দর্শক?

অয়ন: এই সিরিয়ালের শুরুর দিন থেকে আজ পর্যন্ত সবসময় আমরা চেষ্টা করেছি যাই ঘটে থাকুক না কেন তার পিছনে একটা লজিক রাখতে। অকারণে ঝামেলা নয়, নেগেটিভ কোনও কিছু রাখতেও সেটাকে যুক্তি দিয়ে দেখানো হয়েছে। এই কারণে দর্শকের কাছে এটা অনেক বেশি গ্রহণ যোগ্য হয়েছে বলেই পরিচালক হিসাবে আমার মনে হয়। কিন্তু তবুও দিনের শেষে এটা তো মেগা সিরিয়াল। তাই কিছু জিনিস না চাইতেও আমাদের রাখতে হয় গল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য। তবে এই বিষয়টি যাতে না হয় সেটাই আমরা চেষ্টা করব। গল্পের মধ্যে একটা মজা রয়েছে। খুব শীঘ্রই দেখা যাবে রাধিকা কর্ণকে সন্দেহ করছে। কিন্তু সেই সন্দেহটা কখনই প্রকটভাবে নয়। মজার ছলেই সেটি দেখানো হবে। এই বিষয়ে আমি দর্শককে কথা দিতে পারি সিরিয়ালে একাধিক বউ বা বরকে আমরা আনব না।

প্রশ্ন: অন্যদিকে এই সিরিয়ালের ভিলেন পায়েল সেন রাধিকাকে হারাতে হারাতে ক্লান্ত না হয়ে দিনরাত রাধিকাকে জব্দ করতে ব্যস্ত। ২০০ পর্ব পেরিয়ে রাধিকা কি এবার পায়েলের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছে? এরপর কি পায়েল-রাধিকার মিল হবে কোনওসময় নাকি এরকমই চলতে থাকবে?

অয়ন: আমরা জানি হিরোইন সর্বদা সর্বগুণসম্পন্না এবং দশভুজা হয়। আর ভালো খারাপ থাকে বলেই আমাদের কাছে ভালোর চাহিদাটা সবচেয়ে বেশি হয়। আমরা চেষ্টা করব খুব সুন্দরভাবে একটা মিল দেখানোর। তার কারণ রাধিকা তো সবাইকে নিয়ে সবসময় চলতে চায়। যা ধারাবাহিকে আমরা বারবার শুনে এসেছি। আর তাই আমরাও চাই ওরা মিলেমিশে সেন বাড়িকে জমজমাট করে তুলুক। আমার বিশ্বাস রাধিকা এটা পারবে।

 

প্রশ্ন: ডলির সঙ্গে এই সিরিয়ালের আর এক ভিলেন চরিত্র জয়কেও দেখা যাচ্ছেনা। রাধিকা কর্ণের ভয়ে কি তাঁর পার্ট শেষ নাকি আরও ভয়াবহ হয়ে ফিরতে চলেছে সে?

অয়ন: জয়কে দেখা যাচ্ছে না গল্পের খাতিরেই। জয় খুব শিগগিরি ফিরবে। এখন গল্পের স্বার্থেই সে নেই। জয় জয়ের মতন করেই ফিরবে। ভিলেনরা তো বরাবরই ভয়ংকর হয়। একটা ধাক্কা যখন দিয়েছে রাধিকা। তখন জয় হয়তো পালিয়ে গিয়ে সেই প্ল্যান করছে যে আরও বড় প্রতিশোধ কিভাবে নেওয়া যায়। তবে আমরা সবসময় দেখে এসেছি ‘দুষ্টের দমন আর শিষ্টের পালন’। যদি আবার জয় আক্রমণ করে তাহলে রাধিকা-কর্ণ দুজন মিলে তাঁকে যোগ্য জবাব দেবে। এগুলি দর্শকরা আগামী পর্বগুলিতে আরও ভালোভাবে উপভোগ করতে পারবে।

প্রশ্ন: ২০০ এপিসোড পেরিয়ে আসা বাড়ির ড্রয়িংরুমে কর্ণ রাধিকা এখন একটা বিশাল ব্যাপার। ২০০ থেকে ২০০০ এর journey তে আরও কি কি আশা করতে পারি আমরা?

অয়ন: সেটা দর্শকের ভালোবাসার উপর নির্ভর করছে। মানুষ যদি কর্ণ রাধিকাকে দেখতে চায় ২০০০ কেন আরও বেশি পর্ব হলেও আমার কোনও অসুবিধা নেই। এতে আমার নয় আমাদের ভালো হবে। তবে আমরা আশাবাদী যেভাবে মানুষ তাঁদের ভালোবেসেছে তাতে আগামীদিনেও আমাদের পাশে থাকবেন মানুষ।

 

প্রশ্ন: অফস্ক্রিন রাধিকা কর্ণ কেমন? শুটিংয়ের সময় ওরা কোনও সমস্যা হলে বা অন্য কোনও কারণে মানিয়ে গুছিয়ে চলে কিভাবে? শোনা যায় ক্রুশল-স্বস্তিকা একেবারে টম এন্ড জেরির মত। তাহলে ওদেরকে সামলান কি করে? আর সবাই কেমন?

অয়ন: সত্যি বলতে ক্রুশল-স্বস্তিকা একেবারে ‘টম এন্ড জেরির’ মতন। প্রথম দিন থেকেই আমার সঙ্গে ওদের একটা ভালো বন্ডিং তৈরি হয়েছে। আমরা খুব মজা, হইচই করি এবং আড্ডাও মারি। যখন আবার শুটিং ফ্লোরে যাই তখন কোনও সমস্যা হলে আমরা তিনজন মিলেই আলোচনা করি। যাতে শুটিং আরও বেশি ভালোভাবে করা যায়। কোনও কিছু হলে আমার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে রাধিকা এবং কর্ণও ঝাঁপিয়ে পড়ে। যে ফিডব্যাক আমি পাই পরিচালক হিসেবে কর্ণ রাধিকার থেকে তাতে আমি সত্যি খুব লাকি যে ওরা দুজনেই আমার সঙ্গে আছে। আর অফস্ক্রিন রাধিকা কর্ণের মধ্যে ঝামেলা হলেও ওদের মধ্যে খুব সুন্দর একটা আন্ডারস্ট্যান্ডিং রয়েছে। দেওয়া-নেওয়া রয়েছে যার জন্যেই অনস্ক্রিন তাঁদের কাজটা আমরা এতো ভালোভাবে দেখতে পাচ্ছি। তাঁরা একে অন্যের পরিপূরক হয়ে উঠেছে সব দিক থেকে। অনেক সময় সমস্যা কিন্তু হয়েছে তবে সেটা কখনই অনেকটা দীর্ঘ হয়নি যাতে করে প্রোজেক্টের ক্ষতি হয়। অন্যান্য অভিনেতা-অভিনেত্রীদের বিষয়ে বলতে গেলে আমি খুব লাকি যে একঝাঁক তারকাদের সঙ্গে আমি কাজ করছি। যাঁরা প্রত্যেকেই বহু দিনের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন মানুষ। পরিচালক হিসেবে তাঁরা আমাকে যথেষ্ট শ্রদ্ধা, সম্মান করেন। এর পাশাপাশি ক্যামেরার পিছনের বন্ধুরা অর্থাৎ যে কলাকুশলীরা রয়েছেন তাঁরা যেভাবে আমাকে ব্যাকআপ দেন। তাঁরা না থাকলে আমার একার পক্ষে দর্শকের মন জয় করা সম্ভব হত না। আমার পুরো টিম অর্থাৎ ক্যামেরা, সাউন্ড, লাইটের টেকনিশিয়ানরা যেভাবে আমাকে সাপোর্ট করেন তাঁর জন্য তাঁদের কাছে আমি একান্ত কৃতজ্ঞ। এই টিম ওয়ার্ক না হলে একটা সিরিয়ালকে এত ভালো জায়গায় নিয়ে যাওয়া যায়না। আমার মনে হয় ‘কি করে বলব তোমায়’ আজ যে জায়গায় পৌঁছেছে তাতে এই শিল্পী কলাকুশলীদের সম্পর্ক এত ভালো হওয়ার জন্যেই। এটা আমার কাছে একটা বড় পাওনা।

প্রশ্ন: রাধিকার মতো বউ নাকি কলিগ কোনটা পছন্দ আপনার?

অয়ন: (হেসে) কলিগ যদি বউ হয় তাহলে মন্দ কি! সত্যিই রাধিকার মতন কলিগ পাওয়া ভাগ্যের বিষয়। যে অফিসের সঙ্গে বাড়িও সামলাচ্ছে দারুণভাবে। সমস্ত দায়িত্ব নিপুণভাবে পালন করছে। দুটোর মিশ্রণ যদি হয় তাতে আমি ভীষণ খুশি হব।

- Advertisement -
- Advertisment -

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

লোকসভায় বিমুখ উত্তরবঙ্গ সফরে মমতা

স্টাফ রিপোর্টার: লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গ থেকে শুন্য হাতে ফিরতে হয়েছে তৃণমূলকে। সেই হারানো জমি পুনরুদ্ধারে মরিয়া তৃণমূল সুপ্রিমো। আর তাই উত্তরের মনের কথা বুঝতে...

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশকে মান্যতা দিয়ে শিক্ষক নিয়োগের নিয়ম বদল পার্থর

কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ মেনে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বুধবার বিধানসভায় জানিয়ে দিলেন আগামী ১ এপ্রিল থেকে শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিজেদের জেলাতে পোস্টিং পাবে৷ এদিন শিক্ষামন্ত্রী বিধানসভায়...

তৃণমূল বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া প্রসঙ্গে মুখ খুললেন মন্ত্রী অরূপ রায়

হাওড়া: কোনও 'বহিরাগত' নয়, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বালির মানুষকেই প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাই। দিনকয়েক আগেই দিদির কাছে এই আবেদন জানিয়ে হাওড়ার বালির মনসাতলা এলাকায়...

ফের উত্তপ্ত কাশ্মীর, অনন্তনাগে চলছে সেনা-জঙ্গি সংঘর্ষ

শ্রীনগর: সারা দেশ ব্যাপী লকডাউন কিন্তু সীমান্তে গুলির লড়াই অব্যাহত। রবিবার সকাল থেকেই গুলির লড়াই চলছে জম্মু ও কাশ্মীরের অনন্তনাগে। সেখানকার পোশকরেরি এলাকায় অভিযান...
- Advertisment -

খবর এই মুহূর্তে

মালদহে তৃণমূলের দ্বন্দ্বের জেরে অবরুদ্ধ জাতীয় সড়ক

নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদহ: তৃণমূলের অন্দরে দ্বন্দ্বের রেশ অব্যাহত মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরে। দুর্নীতিগ্রস্ত নেতাকে পদ দেওয়ার অভিযোগে একদিন আগেই সরব হয়েছিলেন গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল সদস্যরা। ওই...

নতুন ছবি নিয়ে বড় পর্দায় ফের দেব-মিঠুন জুটি

অর্পিতা দাস: ২০১৫ সালে বড় পর্দায় হিরোগিরি দেখিয়েছিলেন দেব ও মিঠুন চক্রবর্তী। তারপর দর্শক অপেক্ষা করেছেন বহুদিন। এবার কি সেই অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে?...

আপাতত স্থিতিশীল সৌরভ, চলছে নজরদারি

তানিয়া বন্দ্যোপাধ্যায় পাল: অ‍্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করা হয়েছে। আপাতত স্টেন্ট বসানো নিয়ে কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারলেন না চিকিৎসকেরা। তাই কড়া নজরদারিতে রেখে তাঁকে পর্যবেক্ষণে রাখার...

বেলুড়ে গুলি-কান্ডে অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবি তুললেন অর্জুন

নিজস্ব সংবাদদাতা, হাওড়া: বেলুড়ে গুলি-কান্ডে অপরাধীদের গ্রেফতারের দাবিতে এবং 'টিএমসি-পুলিশ' আঁতাতের অভিযোগে হাওড়ায় পুলিশ কমিশনারের অফিসের সামনে বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক...