Home Uncategorized মাছ বিক্রেতা অনুব্রত মণ্ডল কোটিপতি হল কী করে, প্রশ্ন তৃণমূল নেতার

মাছ বিক্রেতা অনুব্রত মণ্ডল কোটিপতি হল কী করে, প্রশ্ন তৃণমূল নেতার

বর্ধমান: হাটে মাগুর মাছ কেটে জীবিকা নির্বাহ করা অনুব্রত মণ্ডল কোটি টাকার মালিক হল কী করে? দলের বীরভূম জেলা সভাপতি তথা দাপুটে নেতার বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ করে এমনই দাবি করেছেন তৃণমূল নেতা নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়। যা নিয়ে নতুন করে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

আরও পড়ুন- গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারায় যাবজ্জীবন সাজা স্বামীসহ শ্বশুর-শাশুড়ির

- Advertisement -

ঘটনার সূত্রপাত বীরভূম তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগে গুসকরা পুরসভার প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলর নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতারের ঘটনা ঘিরে। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে গুসকরার স্কুল মোড় থেকে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। স্থানীয় এক তৃণমূল নেতার করা অভিযোগের ভিত্তিতে নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারের পরেও তৃণমূল নেতা নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গিয়েছে কেষ্টর বিরুদ্ধে হুমকির সুর। তিনি বলেছেন, “কেষ্ট মণ্ডল নিজেকে মুখ্যমন্ত্রীর থেকেও বড় ভাবে। হাটে মাগুর মাছ বেচত। এত কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি হল কোথা থেকে?” একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, “কী করে কেষ্ট মণ্ডলের মেয়ে একসঙ্গে দু’জায়গায় চাকরি করে?”

আরও পড়ুন- পরীক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সমালোচনায় এবিভিপি

অনুব্রত মণ্ডলকে হুমকি দেওয়ার অপরাধে তৃণমূল নেতা নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাঁর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন গুসকরার তৃণমূল নেতা শেখ সুজাউদ্দিন। হুমকি দেওয়ার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন নিত্যানন্দবাবু। তাঁর কথায়, “অনুব্রত মণ্ডলের স্ত্রী ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছিলেন। সেই সময়ে স্ত্রী-র চিকিৎসার জন্য ২০ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন অনুব্রত। সেই টাকা এখন আর ফেরত দিচ্ছেন না। সেই সঙ্গে টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করছেন। তাই হুমকি দিয়েছিলাম।”

গ্রেফতারের পরেও নিজের অবস্থানে অনড় রয়েছেন তৃণমূল নেতা নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, “বিপদের সময় টাকা ধার দিলাম। আর এখন বলছে প্রমাণ কই? আমি যেদিন জামিন পাব সেদিন গিয়ে কেষ্ট মণ্ডলের কলার ধরব।” দলের নেতাদের কারণে গ্রেফতার হওয়ার প্রসঙ্গে নিত্যানন্দবাবু বলেছেন, “এরা দলের লজ্জা।”

আরও পড়ুন- অতীত ভূলে গেলে ভবিষ্যৎ অন্ধকার হয়ে যায়, নয়া বার্তা শুভেন্দুর

যদিও তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। তিনি বলেছেন, “আমি নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়ের কাছ থেকে কোনও টাকা নিইনি। ওর কাজই সবাইকে হুমকি দেওয়া। ওর কাছে লাইসেন্সপ্রাপ্ত আগ্নেয়াস্ত্র আছে। বিনা লাইসেন্সের আগ্নেয়াস্ত্র আছে বলে হুমকি দেখায়। যত সব পাগলামো।”

- Advertisment -

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

ফুসফুসে সংক্রমণের কারণে শারীরিক অবস্থার অবনতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের

নয়াদিল্লি: ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের শারীরিক অবস্থা অবনতি ঘটছে। সকালেই প্রণব মুখোপাধ্যায়ের পুত্র পিতার শারীরিক অবস্থার উন্নতির কথা জানালেও দুপুর থেকে ফের অবনতি...

মানুষ ‘লকডাউন’, পরিষেবা নয়

দীপিকা সাহা: মারণ ভাইরাস করোনার থাবা থেকে দেশবাসীকে রক্ষা করতে প্রহরীর ভূমিকা পালন করছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ এই ভাইরাসের আতঙ্কে ঘুম উড়েছে দেশবাসীর৷ আর...

করোনা মোকাবিলায় অত্যাধুনিক ফেস মাস্ক আনছে অ্যাপেল

নিউ ইয়র্ক: করোনার দাপটে বিধ্বস্ত গোটা বিশ্ব। বিশেষ সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে আমেরিকাতে। তারপরেই আছে ভারত, ব্রাজিল, রাশিয়া। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন সংস্থা তাদের কর্মচারীদের সুরক্ষার...

শহরে ১৪৪ ধারা জারি করল মুম্বই পুলিশ, বাড়ল নাইট কারফিউ

মুম্বই: গতিবিধির উপর লক্ষ্ণণরেখা আগেই টেনে দিয়েছিল৷ এবার কন্টেনমেন্ট এলাকার বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে বেরনো প্রায় বন্ধ করে দিল মুম্বই পুলিশ৷ বুধবার মুম্বই পুলিশ শহরের কন্টেনমেন্ট...
- Advertisment -

খবর এই মুহূর্তে

পাউরুটি ছাড়া বার্গার অর্ডার করে শুধু সসের প্যাকেট পেলেন এক মহিলা

টরেন্টো: বার্গার অর্ডার করে অবশেষে হাতে পেলেন মাত্র সসের দুটি প্যাকেট। ঘটনাটি ঘটেছে কানাডার টরোন্টো শহরের এক বাসিন্দা কেটি পুলের সঙ্গে। কেটি এমন একটি বার্গার...

মালিককে দুমুখো সাপ উপহার দিলো পোষা বেড়াল

ফ্লোরিডা: মালিকের জন্য প্রায়ই বাইরে থেকে নিত্যনতুন উপহার আনত বাড়ির পোষ্য বিড়ালটি। তবে সম্প্রতি তার নিয়ে আসা উপহারটি খুবই আশ্চর্যজনক। অন্যসব উপহারের থেকে সম্পূর্ণ...

দুটি দলের বিবাদের জেরে বিপাকে পড়ল নদিয়ার মানুষ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া: অষ্টমীর রাতে বচসার কারণে একাধিক বাড়ি এবং বেশ কয়েকটি বাইক ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে এলাকারই কয়েকজন যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়া জেলার...

দুর্গাপুজোয় দুঃস্থদের পাশে দাঁড়াল পুলিশ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া: কেউ ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার, কেউ পুলিশ অফিসার, শিক্ষক, কেউ সরকারি বাসের চালক, কেউ আবার বেসরকারী কারখানার কর্মী। এরা প্রত্যেকেই এখন বার্ধক্যের দোরগোড়ায়...