Home খাস কলকাতা বহিরাগত তোষণের ফলেই হাওড়ায় আক্রান্ত বাংলার পুলিশ: বাংলাপক্ষ

বহিরাগত তোষণের ফলেই হাওড়ায় আক্রান্ত বাংলার পুলিশ: বাংলাপক্ষ

সৌমেন শীল, কলকাতা: বাঙালি জনসংখ্যার হার কমে যাওয়াতেই বাংলার পুলিশের উপরে হামলার মতো ঘটনা ঘটেছে। হাওড়া জেলার টিকিয়াপাড়ার ঘটনা নিয়ে এমনই মনে করছে বাঙালি জাতীয়াবাদী সংগঠন বাংলাপক্ষ। এই ঘটনার সঙ্গে ধর্মের রঙ খোঁজার কোনও মানে হয় না বলেও দাবি করেছে বাংলাপক্ষের নেতারা।

ইতিমধ্যেই টিকিয়াপাড়ার ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। ধর্মীয় স্লোগান শোনা গিয়েছে স্থানীয়দের মুখে। পুলিশকে আক্রান্ত হতে দেখে অনেকে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছে। এই বিষয়ে বাংলাপক্ষের নেতা কৌশিক মাইতি বলেছেন, “বাঙালি যেখানে সংখ্যালঘু সমস্যা সেখানে। যারা বাংলার পুলিশকে ইঁট মারছে তাদের ভাষা কি বাংলা?” একই সঙ্গে কৌশিকবাবুর আরও প্রশ্ন, “বাংলায় মাটিতে পুলিশকে ইঁট মারার সাহস বাঙালির আছে?”

- Advertisement -

টিকিয়াপাড়ার ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই তোষণের অভিযোগ তুলে সরব হয়েছেন বিজেপির নেতানেত্রীরা। এই বিষয়ে কৌশিক মাইতি বলেছেন, “এই ঘটনার সঙ্গে ধ্ররম খুঁজবেন না। বাংলার অনেক জায়গায় মুসলমান রয়েছে। বাঙালি মুসলমান যেখানে সংখ্যাগুরু সেই সব জায়গায় তো কিছু হচ্ছে না। গত ১০ বছরে টিকিয়াপাড়ায় বাঙালির শতাংশ কত কমেছে? পুলিশের উপরে হামলার উত্তর সেখানেই স্পষ্ট হয়ে যাবে।”

টিকিয়াপাড়ার ঘটনা নিয়ে বাংলাপক্ষের সভাপতি গর্গ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, “আমরা বাঙালী জাতীয়তাবাদী। আমরা টিকিয়াপাড়া ও ভাটপাড়ার মধ্যে তফাৎ দেখিনা। আবর্জনার গন্ধে, গুটখার রঙে ধর্ম খুঁজি না। গুটখা মুক্ত বাংলা চাই। সব পাড়া বাঙালীর চাই।”

মঙ্গলবার দুপুরের দিকে উত্তাল হয়ে ওঠে হাওড়া জেলার টিকিয়াপাড়া। ওই এলাকার বেলিলিয়াস রোডের সন্নিকটে অবস্থিত মসজিদ রোডে লকডাউনের কোনও নিয়ম মানা হচ্ছিল না। সংখ্যালঘু অধ্যূষিত ওই এলাকায় বহু মানুষ রমজান মাসে একত্রিত হয়ে খাওয়া-দাওয়া করা থেকে আরম্ভ করে উৎসব পালন করছিল।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। থিকথিকে ভিড়। কোথাও লকডাউন বিধির বিন্দুমাত্র মানা হচ্ছিল না। সামাজিক দূরত্বের বিধির কোনও তোয়াক্কা করা হয়নি। ওই পরিস্তিতি সামাল দিতে গিয়েই আক্রান্ত হতে হয় পুলিশ কর্মীদের। একদল উন্মত্ত জনতা তেড়ে আসে পুলিশকে দেখে। উন্মত্ত জনতার সামনে কার্যত দিশাহারা অবস্থা হয়ে যায় পুলিশের। বিশেষ কিছুই করে উঠতে পারেনি পুলিশ। উলটে প্রাণ বাঁচাতে উলটো দিকে ছুটতে শুরু করে পুলিশ।

রাস্তার সকল প্রান্ত থেকে ঘিরে ফেলা হয় পুলিশদেরকে। এরপরেই শুরু হয়ে যায় ইট বৃষ্টি। ওই ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছেন বলে খবর মিলেছে সূত্র মারফত। পুলিশের একাধিক গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলেকায় র‍্যাফ নামানো হয়েছে।

- Advertisment -

সবচেয়ে জনপ্রিয় সংবাদ

রাজ্যে রেশন দুর্নীতি রুখতে কড়া পদক্ষেপ খাদ্য দফতরের

কলকাতা: লকডাউনের মধ্যে রাজ্যে বারবারই খাদ্য বন্টন নিয়ে অভিযোগ উঠেছে। যেমন এসেছে বিরোধী পক্ষের থেকে তেমনই এসেছে কেন্দ্রীয় সরকারের থেকে। তারমধ্যেই রাজ্যজুড়ে শুরু হয়...

নদিয়ায় গুলি করে খুন লটারি বিক্রেতার

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া: ক্লাবের মধ্যেই গুলি করে খুন এক লটারি টিকিট বিক্রেতার। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে নদিয়ার চাকদহের দরাপপুর গ্রামে। মৃতের নাম অমর দাস(৩৩)।...

পেপারলেস বাজেট পেশ করে ৭০০ গাছ বাঁচাল পট্টনায়েক সরকার

ভুবনেশ্বর: পেপারলেস বাজেট পেশ করে দৃষ্টান্ত তৈরি করেছে ওড়িশার নবীন পট্টনায়েক সরকার৷ রাজ্য সরকারের এই পদক্ষেপের জেরে রক্ষা পেয়েছে ৭০০ গাছ৷ ডিজিটাল মাধ্যমের ব্যবহার বাড়িয়ে...

করোনা: বহিরাগতদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহে গিয়ে প্রহৃত আশাকর্মী

লখনউ: প্রশাসনের নির্দেশ মেনে এলাকায় বহিরাগতদের সম্পর্কে তথ্য নেওয়া শুরু করেছেন আশা কর্মীরা। এমনই তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে আক্রান্ত হতে হল এক আশা কর্মীকে।...

খবর এই মুহূর্তে

স্বামী বিচ্ছিন্না মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার যুবক

নিজস্ব সংবাদদাতা, বারাসত: নতুন টিভি আনার পরে বাড়িতে কেবল বিভ্রাট। সেই কেবল লাইন সারাতে এসে স্বামী বিচ্ছিন্না মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল এক যুবকের...

বিজেপির কোর টিমে জায়গা পেলেন মুকুল রায়

নয়াদিল্লি: মাস খানেক ধরে মুকুল রায়ের রাজনৈতিক অবস্থান ঘিরে অনেক জল্পনা হয়েছে। এমনও শোনা গিয়েছিল যে ফের তৃণমূলে ফিরে যেতে পারেন ঘাস ফুলের এই...

গেরুয়া পদ্মের রঙ সবুজ করলেন বিজেপির ক্ষুব্ধ পুরনো কর্মীরা

দমদম: ছিল রুমাল, হল বিড়াল৷ এমনই এক অবাক করা ঘটনা ঘটল দমদমের ছাতাকলে৷ সেখানের বিজেপি পার্টি অফিসের দেওয়ালে আঁকা পদ্মফুলের রং রাতারাতি সবুজ হয়ে...

নদিয়ায় ডেঙ্গু সচেতনতায় এগিয়ে এল গ্রাম পঞ্চায়েত

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া: করোনা ভাইরাসে জনজীবন প্রায় ওষ্ঠাগত৷ তার মধ্যে নতুন করে ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে৷ কথাতে আছে একে রক্ষে নেই সুগ্রীব দোসর৷ সেই...